‘আলোকিত মানুষ’- পর্ব ২।প্রখ্যাত রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী বনানী দত্তের সাক্ষাতকার।।

0
672

# # প্রখ্যাত রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী বনানী দত্তের সাক্ষাতকার # #

আমাদের এই সমাজ যাদের জ্ঞানের আলোয় আলোকিত হয়েছে তাদেরই আমরা ‘আলোকিত মানুষ’ বলে থাকি। আমরা হ্যালো জনতা.কম পরিবারের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নিয়েছি সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্র যেমন ক্রীড়া, শিল্প,সাহিত্য, শিক্ষা, আলোকচিত্র,সংস্কৃতি ইত্যাদি মাধ্যমের আলোকিত কিছু ব্যক্তিত্ব কে তুলে ধরবো বলে । যে মানুষদের মহৎ চিন্তা ও কর্ম সমাজে এগিয়ে যাবার পথে ভূমিকা রাখছে, মানুষের চিন্তাধারার পরিবর্তন আসছে সর্বোপরি দেশ গঠনে যাদের অবদান অপরিসীম- তাঁদের সামনে নিয়ে আসা ।
আমরা তাঁদের জীবনের গল্প শুনব, চেষ্টা করবো তা থেকে শিক্ষা নেবার।
ধারাবাহিক এই পর্বের আজকের অতিথি হিসেবে এসেছেন সবার প্রিয় রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী বনানী দত্ত। দীর্ঘ সময় ধরে সংগীতের সাথে পথ চলা বনানী দত্তের। তার জন্ম এবং বেড়ে উঠা চট্টগ্রামে। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা ভাষা ও সাহিত্য নিয়ে পড়াশোনা করেছেন।
তার সাথে একান্ত আলাপচারিতায় মুখরিত হয়ে উঠেছিল আমাদের অফিস ডেস্ক।
হ্যালো জনতা.কমের পাঠকদের জন্যে সাক্ষাৎকার টি হুবুহু তুলে ধরা হলো।

হ্যালো জনতা – আপনার কাছে প্রথম প্রশ্ন হলো, এককথায় বলেন সংগীত কি?
বনানী দত্ত – আভিধানিক কথা না বলে সহজ ভাষায় বলতে গেলে সংগীত যা মানুষকে আনন্দ দেয়, সংগীত যা আপনাকে সমস্ত কষ্ট, আনন্দ সর্বোপরি একটা মেডিটেশন যা আপনাকে স্বর্গীয় অনুভূতি দিতে পারে তাই সংগীত।
হ্যালো জনতা – আপনার এই পথচলা বা জার্নিটা সম্পর্কে যদি কিছু বলেন? মানে কিভাবে গানের প্রতি আকর্ষন, কিংবা ভালোবাসার শুরু?
বনানী দত্ত – আসলে সংগীতের জার্নিটা শুরু হয়েছে পরিবার থেকেই, পরিবারের সবাই সঙ্গীতের সাথে জড়িত। তাদের সঙ্গীতচর্চা দেখতে দেখতে সংগীত সাধনায় জড়িয়ে পড়ি। এরপর গুরু নির্মল কুমার মিত্রের কাছে আমার সংগীতের হাতেখড়ি বা শুরু হয়। এভাবেই গানের প্রেমে পড়ে যাই।

হ্যালো জনতা – আপনার সঙ্গীত সাধনার গুরু কে?
বনানী দত্ত – আমার সংগীত গুরু শ্রী নির্মল কুমার মিত্র। আর রবীন্দ্রসঙ্গীতে শ্রী মিহির কুমার নন্দী। এছাড়া আরো অনেক গুণী সংগীতগুরুর সান্নিধ্য আমি পেয়েছি।
হ্যালো জনতা – কি ধরনের গান আপনি গাইতে ভালোবাসেন?
বনানী দত্ত – আমি মুলত রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী পাশাপাশি পঞ্চকবির গান গেয়ে থাকি। এছাড়া আধুনিক পুরনো দিনের বাংলা গানও মাঝে মাঝে গেয়ে থাকি।

## বনানী দত্ত ##

হ্যালো জনতা – গান ছাড়া আর কি কি করেন যদি একটু বলেন।
বনানী দত্ত – গান করার পাশাপাশি আমি পোশাক ডিজাইন নিয়ে কাজ করছি।বর্তমানে বিভিন্ন প্রকার শাড়ি নিয়ে কাজ করছি।
হ্যালো জনতা – আচ্ছা ধরুন আপনাকে বলা হোল হয় গান নতুবা বড় কোন কোম্পানিতে সিইও এর চাকরি, যে কোন একটা কে রাখতে হবে? কোনটা বাছবেন?
বনানী দত্ত – অবশ্যই গান। কারণ গানের মধ্যে আমি যে মানসিক প্রশান্তি টা পাই, তা আর কিছুতেই খুঁজে পাইনা। তবে শুধু গান দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করা সম্ভব নয়। তাই পাশাপাশি একটা অনলাইন বেইজ শাড়ির ব্যবসা করছি।
হ্যালো জনতা – গান নিয়ে আপনার ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি?
বনানী দত্ত – আসলে গান নিয়ে সারাটা জীবন থাকতে চাই। ভালো সুর এবং কথা পেলে নিজের কিছু গান করার ইচ্ছা আছে। ছোট ছোট বাচ্চাদের জন্য একটা সংগীত স্কুল গড়ার চিন্তাভাবনা মাথায় আছে।
হ্যালো জনতা – বর্তমান প্রজন্মের সংগীত শিল্পীদের সম্পর্কে কিছু বলুন এবং তাদের করনীয় কি কি?
বনানী দত্ত – আমাদের দেশে এখন অনেক প্রতিভাবান সংগীতশিল্পী তৈরি হচ্ছে। অনেক সুন্দর সুর হচ্ছে,অনেক সুন্দর গান হচ্ছে। কিন্তু প্রতিভা কে টিকিয়ে রাখতে হলে নিয়মিত চর্চা করে যেতে হবে। নিয়মিত চর্চা করা খুব বেশি প্রয়োজন,অবশ্যই প্রয়োজন,অন্যথায় সুর ও সংগীত হারিয়ে যেতে পারে।
হ্যালো জনতা – আপনাকে অনেক ধন্যবাদ আমাদেরকে আপনার মুল্যবান সময় দেয়ার জন্য।
বনানী দত্ত – আপনাকেও শুভেচ্ছা। হ্যালো জনতা পাঠকদের কেও অনেক শুভেচছা ও ভালোবাসা। আপনাদের সবার সুস্বাস্থ্য এবং সুখী জীবন কামনা করছি।

সাক্ষাৎকার টি নিয়েছেন –
মুহাম্মদ মনসুরুল আজম।
ব্যুরো চীফ ।।
চট্টগ্রাম ব্যুরো ।।
## হ্যালো জনতা ডট কম ##
————————–
## প্রকাশিত এখন (শুক্রবার ২৪/৯/২১)’আলোকিত মানুষ- পর্ব ২।
# # প্রখ্যাত রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী বনানী দত্তের সাক্ষাতকার # # লক্ষ্য রাখুন # #
————————–
## প্রতিদিন আমরা দেখি দূরবীন চোখে নিয়ে,খুঁজে ফিরি এদিক সেদিক,সদরে আর অন্দরে- তারপর আপনাদের সামনে আনি’দূরবীন চোখ’। তুলে আনা সেই রত্ন ভাণ্ডার প্রকাশ করি।প্রায় প্রতিদিন বিকালে এখানে দেওয়া হয় পড়ুয়া দের জন্য-দূরবীন চোখ—পড়ুন –‘দূরবীন চোখ’–! ##
———————————
## প্রকাশিত –আখুনজাদা নিহত,বরাদার জিম্মি-দাবী করল ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম !- দূরবীন চোখ । –দূরবীন চোখ–।
——————————
প্রচ্ছদ এ ক্লিক দিয়ে আরো লেখা দেখুন ।।
——————————

# আমাদের সপ্তাহের লেখা গুলি দিন মেনে —
# শনিবার –আবদুল হাকিমের – সব পেয়েছির দেশে (ধারাবাহিক- )।
# রবিবার — আকরাম উদ্দিন আহমেদ – প্রয়োজনীয়-অপ্রয়োজনীয় ।
# সোমবার – আনিসুর রহমান– ভ্রমন ।।
# নন্দিনী সাবরিনা খান লিখেন সোম/মঙ্গল বা বুধবারে ।
# শুক্রবার লিখেন বৈমানিক রেহমান রুদ্র ।
## এ ছাড়াও ‘খেলাধুলা ডেস্কে আছেন ক্রীড়া লেখক ‘ তাসনিম সোহেল ‘। তিনি জানাবেন খেলার শেষ খবর ।
# goggle play store থেকে hello janata লিখে হ্যালো জনতার app টি আপনার মোবাইলে install করে নিন। এক ক্লিকে পাবেন সব লেখা । Iso তে হবে না আপাতত।
একটি হ্যালো জনতা প্রেজেন্টেশন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here