World Cup Football: আর্জেন্টিনা এক নতুন দল,এক নতুন যাত্রা ।

0
72

আর্জেন্টিনা ফুটবল দল । এবারের বিশ্ব কাপে অন্যতম কাপ বিজয়ের দাবীদার । দলে রয়েছেন লিওনেল মেসি , ডি মারিয়া আর দিবালা । বলতে গেলে এই তিন ফুটবল মহারথীর নাম হিসাব করা যাচ্ছে । কিন্তু গত ১ লা জুনের ইতালির সাথে বিজয়ের পরে আর আর্জেন্টিনাকে কাপ বিজয়ীর লড়াইতে পিছনে রাখা যাচ্ছে না । এই বৎসরেই আর্জেন্টিনা আরো দুইটি কাপ জিতেছে সেটিও মাথায় রাখতে চাচ্ছেন ফুটবল বোদ্ধারা ।

মেসি,ডি মারিয়া আর দিবালা কে বাদ দিলে দলটিতে আর সব খেলোয়াড় অখ্যাত । বলতে গেলে চেনেই না অনেকেই ।

বাংলাদেশে আর্জেন্টিনা ফুটবল দলের সমর্থন শুরু হয় সেই ম্যারাডোনার খেলার সময় থেকেই । ক্যাপ্টেন মারিয়ো কেম্পেসের কাপ জয়ের (১৯৭৮) সময় থেকে ।

# মারিয়ো কেম্পেস – ১৯৭৮ সাল ।
সে সময়ের ফুটবলার আরডিলেস কে আজো মনে করে অনেকেই। আর যারা একবার ফুটবলের ঈশ্বরের খেলা দেখেছেন তারা থেকেই গিয়েছেন আর্জেন্টিনার সাথে । সেই সাথে লিওনেল মেসি,ডি মারিয়া , দিবালা এঁদের সমর্থক এখন এ দেশে অনেক বেশি । বাতিগোল রাও সৃষ্টি করে গেছেন অনেক সমর্থক ।ফলে আজো বাংলাদেশ রঙ্গে রঙ্গে রেঙ্গে নেচে উঠে আর্জেন্টিনার খেলার দিনে ।

# ম্যারাডোনা — ফুটবলের ঈশ্বর ।

ম্যারাডোনা’র পরে আর কেউ বিশ্ব কাপের ট্রফি হাতে নিতে পারেন নাই , দিতে পারেন নাই চুমু ।
তাই গত দশ বৎসর হাতে নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে এবারের বিশ্ব কাপের জন্য আর্জেন্টাইন স্কোয়াড । মেসি এ দলের ক্যাপ্টেন ,মেসি এখানে মধ্য মনি । আর দলের পেছনে রয়েছেন দলের কোচ – স্কালোনি । লিওনেল সেবাস্তিয়ান স্কালোনি । তিনি গত দশ বৎসর ধরে সাজিয়েছেন এই আর্জেন্টাইন দল । ইতিমধ্যে দলটি দুই টি কাপ হাতে নিয়ে সাফল্যের মুখ দেখেছে । এ দলে সব নতুন খেলোয়াড় ( মার্কামারা তিন জন বাদে )।
আর তাই এখানে আর্জেন্টিনা দলের পরিচয় করিয়ে দেওয়া হল নিচে । নতুন মুখ এর পরিচয় নিম্নরুপ ——

এমিলিয়ানো মার্তিনেস: ইংল্যান্ডে খেলা হাতে গোনা ফুটবলারদের একজন। তিনি এখন অ্যাস্টন ভিলার গোলকিপার। বুধবার রাতে ইটালির বেশ কিছু আক্রমণ বাঁচিয়ে দিয়েছেন। ফুটবল জীবনের শুরু আর্জেন্টিনার ক্লাব থেকেই। কিন্তু বেশির ভাগ সময়ই কাটিয়েছেন ইংল্যান্ডের নীচের সারির ক্লাবে।

নিকোলাস ট্যাগলিয়াফিকো: শুরু থেকে বেশির ভাগ সময় কাটিয়েছেন আর্জেন্টিনার ক্লাবস্তরে। ২০১৮ থেকে তিনি খেলেন আয়াক্স আমস্টারডামে। দেশের হয়ে এখনও ৪০টি ম্যাচে খেলেছেন। যুবস্তর থেকে দেশের হয়ে খেলছেন তিনি।

ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো: আর্জেন্টিনার ক্লাব থেকে শুরু হলেও জীবনের বেশির ভাগ সময় কাটিয়েছেন ইটালির বিভিন্ন ক্লাবে। জেনোয়া, আটালান্টায় খেলেছেন। জুভেন্টাসে গেলেও একটি ম্যাচও খেলেননি। এখন খেলেন ইংল্যান্ডের ক্লাব টটেনহ্যাম হটস্পারে। তবে নিয়মিত সুযোগ পান না।

নাহুয়েল মোলিনা: জাতীয় দলের রাইট ব্যাক। ইনিও আর্জেন্টিনার বিভিন্ন ক্লাবে প্রাথমিক পর্বে খেলেছেন। এখন ইটালির উডিনেসে ক্লাবে খেলেন। বোকা জুনিয়র্সের যুব দল থেকে উঠে এসেছেন তিনি।

গুইদো রদ্রিগেস: স্পেনের ক্লাব রিয়াস বেটিসে খেললেও নিয়মিত সুযোগ পান না। রিভারপ্লেট থেকে ফুটবলজীবন শুরু তাঁর। সেখান থেকে তিজুয়ানা, ক্লাব আমেরিকা হয়ে বেটিসে।

রদ্রিগো দি পল: আতলেতিকো মাদ্রিদের হয়ে খেলেন বটে। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তাঁকে প্রায় নামানই না কোচ দিয়েগো সিমিয়োনে। ২০২১-এ স্পেনের ক্লাবে যোগ দিয়ে খেলেছেন মাত্র ৩৬টি ম্যাচ। কিন্তু আর্জেন্টিনার হয়ে মাঝমাঠ একার হাতেই নিয়ন্ত্রণ করেন। কোপা আমেরিকা ফাইনালে অসাধারণ খেলেছিলেন।

জিয়োভান্নি লো সেলসো: আর্জেন্টিনার ক্লাব স্তরে খেলে স্পেনে এসেছিলেন। মাঝে কিছু দিন ইংল্যান্ডের টটেনহ্যামে কাটানোর পর লোনে আবার তিনি স্পেনে। খেলেন ভিয়ারিয়ালে। যথারীতি সব ম্যাচে সুযোগ পান না।

লাউতারো মার্তিনেস: আর্জেন্টিনার ক্লাব থেকে ইটালির ইন্টার মিলানে যোগ দেন। দীর্ঘ দিন ধরেই সেখানে খেলছেন। জাতীয় দলে তাঁকে না নেওয়া নিয়ে অনেক প্রশ্ন উঠেছে। অবশেষে দলে জায়গা পেয়ে নিজেকে প্রমাণ করছেন তিনি।
———-
ফিচার গ্রুপ ।
আজ শুক্রবার (১০ জুন)
আরো পাচ্ছেন
ওয়াইল্ড লাইফ ফটোগ্রাফার
ফাতেমা কিবরিয়া লাবণ্য’র
পাখি নিয়ে একটি লেখা ।

ফিচার গ্রুপ ।
———-

জুয়ান ফয়েথ: টটেনহ্যাম ঘুরে এখন ভিয়ারিয়ালে খেললেও, কোনও ক্লাবেই নিয়মিত সুযোগ পাননি। জাতীয় দলে বরং অনেক বেশি ধারাবাহিক।

এজেকিয়েল পালাসিয়োস: আর্জেন্টিনায় ফুটবলজীবন শুরু করার পর এখন বেয়ার লেভারকুসেনে খেলেন। কিন্তু নিয়মিত সুযোগ না পাওয়াদের দলে রয়েছেন তিনিও।

পৃথিবীর ফুটবলের অঙ্গনে আর্জেন্টিনা এবার কি নতুন চমক নিয়ে আসছে(?) এমন ভাবছেন অনেকেই । ইতিমধ্যেই ফ্রান্স এবং আর্জেন্টিনাকে ফাইনালিস্ট হিসাবে দেখছেন অনেকেই ।


সহিদুল ইসলাম ।
খেলাধুলা ডেস্ক ।
চট্টগ্রাম ব্যুরো ।
হ্যালো জনতা ডট কম ।
hellojanata.com .
# আমাদের সব লেখা ও সংবাদ ফেসবুক,টুইটার ও লিঙ্কেডিনে প্রচারিত ।
# লেখাটি আমাদের ব্লগে পাবেন আজকেই ।
হ্যালো জনতার ব্লগ সাবস্ক্রাইব করুন।।
কপি অ্যান্ড পেস্ট টু ইওর ব্রাউসার ।
https://hellojanata350.blogspot.com–

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here